নতুন পোস্ট

শুভ জন্মদিন : প্রিয় কণ্ঠসম্রাজ্ঞী

শুভ জন্মদিন : প্রিয় কণ্ঠসম্রাজ্ঞী


বাংলা, উর্দু, পাঞ্জাবি, হিন্দি, সিন্ধি, গুজরাটি, বেলুচি, পশতু, ফার্সি, আরবি, মালয়, নেপালি, জাপানি, স্পেনীয়, ফরাসি, লাতিন ও ইংরেজি ভাষাসহ মোট ১৮টি ভাষায় ১০ হাজারেরও বেশি গান করেছেন।

সিলেটে জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা সৈয়দ মোহাম্মদ এমদাদ আলী ছিলেন সরকারি কর্মকর্তা এবং মা আনিতা সেন ওরফে আমেনা লায়লা ছিলেন সঙ্গীত শিল্পী। তার মামা সুবীর সেন ভারতের বিখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী। তার যখন আড়াই বছর বয়স তার বাবা রাজশাহী থেকে বদলী হয়ে তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের মুলতানে যান। সে সুত্রে তার শৈশব কাটে পাকিস্তানের লাহোরে।

১৯৬৬ সালে উর্দু ভাষার হাম দোনো চলচ্চিত্রে “উনকি নাজরোঁ সে মোহাব্বত কা জো পয়গম মিলা” গান দিয়ে সঙ্গীতাঙ্গনে আলোচনায় আসেন। ১৯৬০-এর দশকে তিনি নিয়মিত পাকিস্তান টেলিভিশনে পরিবেশনা করতে থাকেন। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৪ সালে তিনি জিয়া মহিউদ্দিন শো-তে গান পরিবেশন করতেন এবং ১৯৭০-এর দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দেওয়া শুরু করেন। ১৯৭৪ সালে তিনি কলকাতায় “সাধের লাউ” গানের রেকর্ড করেন। একই বছর মুম্বইয়ে তিনি প্রথমবারের মত কনসার্টে সঙ্গীত পরিবেশন করেন। এসময়ে দিল্লিতে তার পরিচালক জয়দেবের সাথে পরিচয় হয়, যিনি তাকে বলিউড চলচ্চিত্রে এবং দূরদর্শনের উদ্বোধনী আয়োজনে গান পরিবেশনের সুযোগ করে দেন। এক সে বাড়কার এক চলচ্চিত্রের শীর্ষ গানের মাধ্যমে তিনি সঙ্গীত পরিচালক কল্যাণজি-আনন্দজির সাথে প্রথম কাজ করেন। এই গানের রেকর্ডিংয়ের সময় প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী লতা মুঙ্গেশকর তাকে আশীর্বাদ করেন। তিনি “ও মেরা বাবু চেল চাবিলা” ও “দামা দম মাস্ত কালান্দার” গান দিয়ে ভারত জুড়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

বন্ধুরা আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন যাকে নিয়ে এতো কথা এতো গল্প এতো কল্প তিনি রুনা লায়লা ছাড়া কেউ নন। রুনা লায়লা সমগ্র পৃথিবীর কণ্ঠ সম্রাজ্ঞী। আমাদের গর্ব ও অহংকার উভয়ই। মঞ্চের মোহন ভঙ্গিমায় কিছুটা চিড় ধরলেও তাঁর ভুবনজয়ী কণ্ঠ বাংলার আকাশে বাতাসে ধ্বনিত হবে বহুকাল।

আজ ১৭ নভেম্বর এই মহান শিল্পীর জন্মদিন। এই সূত্রে আজ বাংলা সঙ্গীতের অনন্য উৎসব। রুনা লায়লার কণ্ঠ অনুরণিত হোক প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে …

আজ ডেকে যাওয়া সব পাখির নাম রুনা
আজ যতো ফুল ফুটেছে সব ফুল লায়লা
শুভ জন্মদিন প্রিয় কণ্ঠসম্রাজ্ঞী

 


পোস্টের লেখা : কবি Jamil Jahangir- এর ফেসবুকে পাতা থেকে । আঁকা ছবি : শিল্পী মাসুক হেলাল-এর

About S M Tuhin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *