কবিতা

কবিতা

কবিতা : শেলী নাজ

শেলী নাজ কলা অনুষদ নিষাদ গোত্রের শিক্ষকেরা এসে পড়ায় এ কলা অনুষদেভাঁজ খোলে ছন্দদেবী চোষট্টি কলায়, অতলান্তিক সে হৃদে বালিকারা কোনদিন পারেনি খুলতে জট বটের ঝুড়িরশেকড়ের গায়ে গায়ে লেগে থাকে মৃদুজল মাতামুহুরির শিবের মন্দির থেকে মন্ত্র জানা সর্প এসে আলাপ জমায়আঙ্গুল পড়ায়, পড়তে শেখায় প্রত্নকলা মেসোপটেমিয়া প্রথম সবক দেয়া তাম্র …

Read More »

কবিতা : গৌতম গুহরায়

গৌতম গুহরায় বসন্ত চৈত্র কি শেষ হয়ে এলো, আঙুলে আঙুলে তেঁতে ওঠা বাতাসএকজন ফস করে বলেই ফেললেন, ‘বসন্ত’ব্যাস, মুখর মুখে ফাগ ও ফাগুনের সেই পুরোনো গল্প !একটা দেওয়ালের এদিক ওদিক, রঙ মাখা জলের খেলা সেই কি হাসি আমাদের, হাতে হাতে ডানা মেলা দুপুরের আলো,একজন বললেন : ‘কাল সকালে খাসির মাংস …

Read More »

কবিতা : রিমি মুৎসুদ্দি

রিমি মুৎসুদ্দি এলডোরাডো বিশাল কোনো বনের মধ্যেকোথাও লুকিয়ে এলডোরাডোমুঠোর মধ্যে স্বপ্ন, পায়ের তলায় জগত রাতের দুঃসাহস তখনওঘুমের মধ্যে পুরোনো মানচিত্র মেলে ধরে।চেনা পাহাড়, জঙ্গল, বসতঅথবা বন্ধ হয়ে যাওয়া কারখানা থেকেটগবগে দৌড়বাজ লাল মাংসেরপোড়া গন্ধ ভেসে আসে। সকালে চায়ের কাপে পড়ে থাকা চিনিআর রক্তে মিশে যাওয়া শর্করানিজেরাই খুঁজে নেয় শব্দ।দাঁড়ি, কমা …

Read More »

কবিতা : এলিজা খাতুন

এলিজা খাতুন ব্যবধান শ্রাবণের জানালায় হাত বাড়াও তোমরাবৃষ্টি ছোঁও, আকাশ দ্যাখোরান্নাঘর থেকে ভেসে আসা গুরুপাকের ঘ্রাণ আরসঙ্গীতে ভেসে যায় তোমাদের শৈল্পিক হৃদয় আমার শুধু হৃদয় ভাসে না; ভেসে যায় সবটুকুচোখ ভেসে যায়, বুক ভেসে যায়টাটি-বেড়ার ঘর-দুয়ার ভাসেক্ষুধা ভাসে জলে হাবুডুবু উনুনেউপেক্ষা ভাসতে থাকে চলমান স্রোতে আকাশের হাতে কী এমন নীল? …

Read More »

তিন . কবিতা : ঝিলম ত্রিবেদী

তিন . কবিতা ঝিলম ত্রিবেদী এমন একরকম আর পাঁচটা সাধারণ সংসারের মতই… ভিজে কাপড় তুলে নিয়েছাদ থেকে ফিরে এলে দুপুরের চোখকেউ আজও হয়ে ওঠে পুরোনো নিমগাছছায়া হয়স্নেহ হয়ভাত বাড়ে সমুদ্রে পুড়ে যাওয়া হাত! এখানে এসেছে তারা নতুনপশ্চিমের জানলা খোলে নাআয়নায় শুয়ে থাকে সারারাত রাত্তিরের লোকভাবে— ‘যুদ্ধবিরতিকেউ ঘোষণা করেছে কি?’ আজ …

Read More »

কবিতা – খেরোখাতা : দিলরুবা

খেরোখাতা দিলরুবা খেরোখাতা – ১ তারপর সারাবেলা হেলাফেলা, একে ছোঁয়া তাকে চাওয়াসবখেলা সারা হলে দিনশেষে ঘরে ফেরামেঘ ছুঁয়ে ফিরে আসা নীল ঘুড়িকানে কানে বলে গেল তার কথামেঘ ভাসা নীল জলে যাকে আমি ছুঁয়ে থাকি… খেরোখাতা – ২ কোন পুরুষের বাম পাঁজরের হাড়ে গড়া এ শরীরসে চুলচেরা হিসেব কষে সময় নষ্ট …

Read More »

কবিতা : রোকেয়া ইসলাম

রোকেয়া ইসলাম বিকেলটা শুধু উষ্ণতা খোঁজে টুপ করে সন্ধ্যার শরীরে ডুবে যাওয়া বিকেলনিবিড় উত্তাপে হাত বাড়ায় স্রেফ উষ্ণতার জন্যগল্পের ঝাঁপিরা অজানা অচেনা অন্যমরচে ধরা ফেডেড জীবন বয়ে চলেফ্ল্যাপহীন নীল কষ্টের বাইসাইকেল। তুষের অদেখা অনল জানান দেয়শুভ্র শীতলতায় আকণ্ঠ নিমজ্জিত পৌষের রাতভিজছে কাঠগোলাপ ভিজছে কৃষ্ণচূড়াভিজছে নিয়নবাতির ধুলিময় শহরশিশিরের মোহমায়ায়। দুয়েকটি ব্যতিক্রম …

Read More »

কবিতা : ইফতেখার হালিম

ইফতেখার হালিম অনবদ্য প্রেমের কাব্য বৈষম্যের প্রাচীর উঁচু হচ্ছে অনায়াশেকষ্টের গল্প হচ্ছে বড়কার কথা বলব-নদীভাঙা অসহায়দেরমাটিকাটা বিধবা শ্রমিকেরনা যৌতুকের জন্য তাড়িয়ে দেয়াইটভাঙা নারীর কথা। ভাঙছে ঘরছিন্ন হচ্ছে সম্পর্কছলনায় ও শঠতায় দূষিত ভালোবাসাপথে পথে মিথ্যার ভাষা ধূলির মতো উড়েপ্লাটফরমে বঞ্চিত মানুষের দীর্ঘ মিছিল। দিন দিন বাড়ছে কান্নাসংবাদে ছাপা হচ্ছে প্রতিদিনধর্ষিতার শিরোনমগভীর …

Read More »

কবিতা : মঞ্জীর বাগ

মঞ্জীর বাগ মহেঞ্জোদরো চাঁদের আলোয় ভেসে যেতে যেতেআলো যেন এক মায়ানগরীর ঘুমের ভেতর আমাকে এনেমহাকালের বুকের পাঁজরের বাঁশির সুরের মাঝেগান অথবা সূর ভেবে স্থান খুঁজে দেবে ভেবেআধ জাগা নগরীর স্নানাগারের জলের সামনেদাঁড় করিয়েইতিহাসের পাতায় মিশে গেল আমার এই নগর দেখা বাকি ছিল।মৃত স্বপ্নেরা স্তুপাকৃতি হয়ে যে অতীত গান গাইছেতার সুর …

Read More »

পূর্ণ প্রদীপ জ্বালো : মৃন্ময় মণ্ডল

পূর্ণ প্রদীপ জ্বালো মৃন্ময় মণ্ডল আমি যখন সবকিছু গুছিয়ে নিয়েঘর বেঁধে উনুন খুঁড়ে তোমাকে ডাকলামতুমি তখন উদাসীন উর্দ্ধাকাশে বিলীনবললে তুমি, ‘আমার কাছে ঘর অর্থ পরাধীন।’ সেই থেকে তুমি আমি ঘরহীন। জীবন যাপনব্যাখ্যাহীন। সুখে-দুখে সারাদিন আশা-নিরাশার রৌদ্রখরাদুখের মধ্যে সুখ খুঁঁজে রৌদ্রজলে ভিজে থাকি। অনেক দূরে কোথায় তুমি গেলে চলে?ঠিক-ঠিকানা বাড়িগাড়ি ভীষণ …

Read More »